জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সুবীর নন্দী

এবং ডেস্ক : সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একুশে পদক পাওয়া সঙ্গীতশিল্পী সুবীর নন্দীর শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন। ক্রমেই অবস্থার অবনতি হচ্ছে। তার শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ কাজ করছে না বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। হাসপাতালে তার সঙ্গে আছেন মেয়ে ফাল্গুনী নন্দী।

সুবীর নন্দীর চিকিৎসার বিষয়টি সমন্বয় করছেন জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্ল্যাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক অধ্যাপক ডা. সামন্তলাল সেন। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন তিনি।
সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় তিনি বলেন, ‘সিঙ্গাপুরে চিকিৎসকদের সঙ্গে সোমবার বিকেলে কথা হয়েছে। তারা বলেছে, সুবীর নন্দীর কিডনিসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ঠিকমতো কাজ করছে না। চিকিৎসকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন। সুবীর নন্দী এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

সামন্তলাল সেন আরও বলেন, ‘শনি, রবি ও সোমবার সুবীর নন্দীর হার্ট অ্যাটাক হয়। এ নিয়ে তিনবার হার্ট অ্যাটাক হলো। গত রোববার তার হার্টে চারটি রিং পরানো হয়। ২০১৩ সালে ওপেন হার্ট সার্জারি হয়েছিল।’

টানা ১৮ দিন অজ্ঞান থাকার পর সুবীর নন্দী চোখ খোলেন গত শুক্রবার। ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩০ এপ্রিল তাকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়। দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুস, কিডনি ও হৃদরোগে ভুগছেন তিনি।

গত ১৪ এপ্রিল শ্রীমঙ্গলে একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ঢাকায় ফেরার পথে উত্তরায় কাছাকাছি আসতেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে সুবীর নন্দীর। এর পর সেখান থেকে সরাসরি সিএমএইচে নেওয়া হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পরই তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছিল।

ট্যাগ্স
আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Leave a Reply

Close