নারীদের তারাবির জামাত নিয়ে দুই কাউন্সিলরের সংঘর্ষ, আহত ১০

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে একটি মহিলা মাদ্রাসায় নারীদের তারাবি নামাজে পুরুষের ইমামতি নিয়ে সেখানকার দুই কাউন্সিলরের সমর্থকদের মধ্যে হামলা,সংঘর্ষ ও ধাওয়াপাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

রোববার রাতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের (নাসিক) ২৭নং ওয়ার্ডের বন্দরের কুড়িপাড়া এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে ৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুলের ছেলে শাহজাদা, বিজয়, সবুজ, নাদিম, মৃত বিলাত আলীর ছেলে হান্নান ও হান্নানের ছেলে কাউসার।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বন্দরের কুড়িপাড়া এলাকার জান্নাতুল বানাত মহিলা মাদ্রাসায় পুরুষ ইমামের ইমামতিতে নারীদের জামাতে তারাবি নামাজ আদায় এবং স্থানীয় খোদাইবাড়ি মসজিদে ইমাম নিয়োগ নিয়ে এলাকাবাসীর দুই গ্রুপের মধ্যে কয়েক দিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

বিষয়টি নিয়ে নাসিক ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল গ্রুপ ও সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ে এলাকাবাসী।

রোববার রাতে সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলামের সমর্থকরা বর্তমান কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুলের সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়।

এ ব্যাপারে নাসিক ২৭নং কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল বলেন, মাদ্রাসায় একজন হাফেজ মহিলাদের তারাবি পড়ান। এতে বাধা দেন ২৭নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম। তিনি মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে মহিলাদের তারাবি নামাজ বন্ধ করে দেন। প্রতিবাদ করায় সিরাজের লোকেরা রোববার রাতে হামলা চালায়। রাতে সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে তৌহিদি জনতার ব্যানারে ব্যাপক হামলার প্রস্তুতি নেয়া হয়। পুলিশ এসে তৌহিদি জনতাকে নিবৃত্ত করে। ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, দুই পক্ষের সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। বন্দরের কুড়িপাড়া খোদাইবাড়ি মসজিদ কমিটি নিয়ে দুই কাউন্সিলরের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

ট্যাগ্স
আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Leave a Reply

Close