বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক সোনালি অধ্যায়ে: রীভা গাঙ্গুলী

যশোর প্রতিনিধি : বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক এখন সোনালি অধ্যায়ে পৌঁছেছে। তথ্যপ্রযুক্তি, এনার্জি, রেলসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচিতে দুই দেশের ৯০টি চুক্তি রয়েছে। বাংলদেশের জিডিপি ৮ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। শিগগিরই দেশটি মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছবে। তিনি বলেন, এদেশের তরুণদের জ্ঞানভিত্তিক বিশ্বমানের নাগরিক তৈরি হতে হবে। তাদের চাকরিগ্রহীতা নয়; হতে হবে চাকরিদাতা।

বুধবার যশোরে শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে ‘তথ্যপ্রযুক্তি এবং উদ্ভাবন বিষয়ে ভারত-বাংলাদেশ সহযোগিতা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক কর্মশালায় বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক এ কর্মশালার আয়োজন করে। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ, ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্সের রিসোর্স পারসন সৌম্য বসু। পরে ‘বাংলাদেশে স্টার্ট-আপ কালচার :সমস্যা, সম্ভাবনা এবং চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ টিনা জাবিন।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বর্তমানে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্য ঘাটতি হ্রাস পেয়েছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে আইসিটি খাতে ভারতের বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে দেশের ১২টি জেলায় হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পে ভারত অর্থায়ন করছে। অদূর ভবিষ্যতে ভারত এদেশে তাদের সহযোগিতার ক্ষেত্র আরও প্রসারিত করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

কর্মশালা শেষে মাল্টি টেন্যান্ট বিল্ডিংয়ের (এমটিবি) নিচতলায় আইটি প্রতিষ্ঠানগুলোর উদ্ভাবনী পণ্য প্রদর্শনী এবং স্থানীয় স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বিজনেস টু বিজনেস সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ট্যাগ্স
আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Leave a Reply

আরো দেখুন

Close
Close