আমার আর সাকিবের ব্যাপারটা আলাদা: আশরাফুল

এবং ডেস্ক :ম্যাচ পাতানোর খড়গে পড়ে নিষেধাজ্ঞা কাটাতে হয়েছে আশরাফুলের। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলছেন তিনি। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় অন্তত এক বছর নিষিদ্ধ হওয়া সাকিবে ফিরে আসার অভয় দিচ্ছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। মনে করছেন, দেশ সেরা ক্রিকেটার সাকিবের জন্য এই একটা বছর হবে খুবই চ্যালেঞ্জিং।

ক্রীড়া বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে আশরাফুল বলেন, ‘আমার আর সাকিবের ব্যাপারটা আলাদা। সাকিব জুয়াড়ির প্রস্তাব আইসিসিকে জানায়নি। আর আমি ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত ছিলাম। সাকিবের ব্যাপারটা আইসিসির নিয়মকে একটা ধাক্কা দেবে। আমরা ক্রিকেট ভালোবাসি। সাকিবকে এখন কী কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে তা ভাষায় প্রকাশ করার নয়। আমার মতে, ওকে নিয়ে এতো খবর ছাপানো ঠিক না। এতো সংবাদের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া সত্যিই খুব কঠিন।’

নিজের সেই সময়ের কথা উল্লেখ করে আশরাফুল বলেন, সাকিবকে আমার মতো কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে না। প্রথম ছয় মাস আমি রাতে ঘুমাতে পারতাম না। সারা রাত টিভি দেখতাম। দুপুর ২টা পর্যন্ত ঘুমাতাম। এরপর হজ করে আসার পর আমার জীবনে নতুন এক মাত্রা আসে। আমি সবসময়ই ভাবতাম, কখনও আর খেলতে পারবো। আমার বয়স তখনই ৩০ হয়ে গিয়েছিল। ক্রিকেট বোর্ড সাকিবে খুবই সহায়তা করছে। কিন্তু আমি ততটা পায়নি যত সহায়তা বোর্ডের থেকে সাকিব পাবে।’

আশরাফুল জানান, যখন দলের হয়ে খেলতেম অর্ধেক সমর্থন ছিল তার পক্ষে। বাকিরা বিপক্ষে। কিন্তু যখন ম্যাচ পাতানোর ঘটনা স্বীকার করেন তার আশ-পাশের ৯৫ ভাগ মানুষ তাকে সমর্থন করেছে। তারা শুধু ভেবেছে আমি এই কাজ একা করতে পারি না। এটা সম্ভবই না।’ আশরাফুল বলেন, ‘ওই তিন বছর আমি দেশে খেলতে কিংবা অনুশীলনই করতে পারতাম না। ফিট থাকা খুবই কঠিন হয়ে গিয়েছিল। পরে দেশের বাইরে কিছু ম্যাচ খেলেছি। সাকিবকে আমারা মতো সমস্যায় পড়তে হবে। সে মিরপুরেই অনুশীলন করতে পারবে।’ তিনি জানান, সাকিবের জন্য খুব খারাপ লাগছে। বিশ্বাসই হচ্ছে না, সাকিব এমন ভুল করতে পারে।

ট্যাগ্স
আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Leave a Reply

Close